বুধবার , ১৮ জুলাই ২০১৮
Home » খেলাধুলা » বাজিমাত ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টেরও
125394_bajimat

বাজিমাত ক্রোয়েশিয়া প্রেসিডেন্টেরও

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃতার সব কিছুতেই চমক। এবারের বিশ্বকাপে ফুটবলপ্রেমীদের নজর কাড়েন ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিন্দা গ্রাবার কিতারোভিচও। আর বুধবার ইঙ্গ-ক্রোয়াট ম্যাচ শুরুর আগেই এক ঘটনায় ইংলিশদের টেক্কা দেন তিনি। ব্রাসেলসে সাক্ষাতে বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’কে ক্রোয়েশিয়ার এক জার্সি উপহার দেন কিতারোভিচ। ক্রোয়েশিয়ার ১০ নম্বর জার্সির পেছনে লেখা তেরেসা মে’র নাম। পরে ক্রোয়াট প্রেসিডেন্ট নিজেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই ছবি পোস্ট করেন।এবারের বিশ্বকাপে মদরিচ-রাকিটিচদের মাঠের নৈপুণ্যের সঙ্গে ফুটবলপ্রেমীদের মনোযোগ কেড়েছেন ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্টও।
এর আগে বিশ্বকাপে দলকে সমর্থন যোগাতে সাধারণ যাত্রীদের সঙ্গে বিমানের ইকোনমি ক্লাসে চেপে রাশিয়ায় পৌঁছেন ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিন্দা গ্রাবা কিতারোভিচ। কোয়ার্টার ফাইনালে ভিআইপি গ্যালারিতে ছিল তার সরব উপস্থিতি। ব্রাসেলসে ন্যাটো সম্মেলনে ব্যস্ত না থাকলে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচেও জাতীয় দলের জার্সি গায়ে গ্যালারিতে মদরিচদের সমর্থনে গলা ফাটাতেন তিনি।
কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক রাশিয়াকে টাইব্রেকারে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট কাটে ক্রোয়াটরা। গ্যালারিতে বসে ওই ম্যাচ উপভোগ করেন কিতারোভিচ। ২০১৫ সালে ক্রোয়েশিয়ার ইতিহাসের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন কিতারোভিচ। ৫০ বছর বয়সী কিতারোভিচ নজর কাড়েন রাশিয়ার বিপক্ষে খেলা চলাকালেই। কোয়ার্টার ফাইনালে ভিভিআইপি বক্সে ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো ও রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভের সঙ্গে বসে খেলা উপভোগ করেন তিনি। জাতীয় দলের জার্সি এবং লাল রঙের প্যান্ট পরে ক্রোয়েশিয়ার প্রতিনিধি হিসেবে বিশ্বকাপে খেলা দেখতে আসেন প্রেসিডেন্ট কিতারোভিচ। আর ম্যাচে উত্তেজনাকর মুহূর্তে ক্রোয়েশিয়ার হয়ে গলা ফাটাতে দেখা যায় তাকে। অতিরিক্ত সময়ে ক্রোয়েশিয়া ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার সময়ে বাঁধভাঙা উদ্‌যাপন করেন তিনি।
কিন্তু তখনও আসল উদ্‌যাপনটা জমিয়ে রেখেছিলেন ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট। বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ওঠার পর খেলোয়াড়দের সঙ্গে ড্রেসিং রুমে নেচে গেয়ে উল্লাস করেন ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট। খেলোয়াড়দের সঙ্গে তার এমন উৎফুল্ল আচরণে মুগ্ধ ফুটবল বিশ্ব। তার এই উদ্‌যাপন সাড়া ফেলেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও। ১৯৯৬ সালে বিয়ে করেন কলিন্দা গ্রাবার কিতারোভিচ। তার ১৭ বছর বয়সী কন্যা ক্যাতারিনা ফিগার স্কেটিংয়ে ক্রোয়েশিয়ার ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন। শিক্ষা জীবনে জাগরেব, ভিয়েনা, ওয়াশিংটন ডিসি ও হাভার্ডে অধ্যয়ন করেছেন কলিন্দা। ক্রোয়াট ছাড়াও ইংলিশ, স্প্যানিশ, পর্তুগিজ, জার্মান, ফ্রেঞ্চ ও ইতালিয়ান ভাষায় অনর্গল কথা বলতে পারেন তিনি।

আরও দেখুন

fire-east-london

Wanstead Flats grass fire tackled by 200 firefighters

Bangla sanglap desk: More than 225 firefighters are tackling a large grass fire in east …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *