বৃহস্পতিবার , ১৬ আগস্ট ২০১৮
সর্বশেষ সংবাদ
Home » বাংলাদেশ » বরিশালে মাথায় মল ঢেলে মাদরাসা সুপারকে লাঞ্ছনা
mad

বরিশালে মাথায় মল ঢেলে মাদরাসা সুপারকে লাঞ্ছনা

madবাংলা সংলাপ ডেস্কঃমাদ্রাসার জমি দখলে বাধা দেয়ায় এবং পরিচালনা কমিটিতে জায়গা না পেয়ে বাকেরগঞ্জে এক মাদরাসার সুপারকে প্রকাশ্যে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। এসময় আবু হানিফ(৫০) নামের কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ওই সুপারের মাথায় মল ঢেলে দিয়ে তা ভিডিও করে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়।
বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নে শুক্রবার সকালে লাঞ্ছনার এ ঘটনার ভিডিও গতকাল রবিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এই  ঘটনায় মিঞ্জু হাওলাদার ও বেল্লাল হোসেনসহ দু’জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। ঘটনার শিকার কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।
আবু হানিফ সাংবাদিকদের জানান, ১১ তারিখ সকালে ফজরের নামাজ পড়ে ৭টার দিকে হাঁটতে বের হয়েছিলাম। তখন জাহাঙ্গীর মৃধা ও মাসুম সরদারের নেতৃত্বে অনেকে মিলে আমাকে রাস্তায় আটক করে লাঞ্ছিত করে। সামাজিকভাবে আমাকে অসম্মানিত করার জন্য ওরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে।
ফেসবুকে ছড়িয়ে পরা ভিডিওতে দেখা গেছে, আবু হানিফ রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। এসময় কয়েকজন তার পথ রোধ করে। এরপর একজন তার মাথার টুপি ও কাঁধের রুমাল খুলে নেয়। তখন আবু হানিফ তার মোবাইল ফোন বের করলে একজন এসে ফোনটি কেড়ে নেয়। অন্য আরেকজন তার হাত চেপে ধরে রাখে। তারপর পলিথিনে পেঁচানো একটা হাঁড়ি বের করে সেখান থেকে মল-মূত্র ঢেলে দেয় হানিফের মাথায়। এসময় তাকে হুমকি দিয়ে বলা হয়- ‘‘এইয়া নিয়া যদি বাড়াবাড়ি করো তাহলে তোর জীবন শেষ হইয়া যাইবে’’। এরপর তাকে গালাগালি করে স্থান ত্যাগ করতে বলা হয়।
এই ঘটনায় বাদী হয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় ৮ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে আবু হানিফ। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ‘‘আসামিরা নানাভাবে বিনা অনুমতিতে মাদ্রাসার জমিতে বিভিন্ন কার্যক্রম করে আসছিলো। আমি এতে বাধা দিই। এ নিয়ে মামলাও চলছে। আমি মামলার বাদী। এ কারণে ওরা আমার উপর ক্ষিপ্ত। সেই সাথে মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি পদেও এই দলের লোক জাহাঙ্গীর জায়গা পায়নি। সভাপতি হয়েছেন এখানকার সংসদ সদস্যের মনোনীত ব্যক্তি। এসব করণে ওরা ক্ষেপে আমাকে নির্যাতন করেছে।’’
এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানান, মামলা দায়েরের পর দু’জনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে। তবে তদন্তের স্বার্থে মামলার বিবাদীদের নাম বলতে রাজি হননি এই পুলিশ কর্মকর্তারা।

আরও দেখুন

8af057b6bd9947e97a2813fb5f6d2375-5b73092a47b6e

এস কে সিনহাকে কোথাও পেলে “পেটাতে” চান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃ জীবদ্দশায় একবার হলেও সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে ‘পেটাতে’ চান বলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *