রবিবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০
সর্বশেষ সংবাদ
Home » আন্তর্জাতিক » সৌদির নেতৃত্বে নতুন সামরিক জোটের আত্মপ্রকাশ, অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ

সৌদির নেতৃত্বে নতুন সামরিক জোটের আত্মপ্রকাশ, অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ

জোটের ঘোষনা দেন সৌদির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান   - আরব নিউজ
জোটের ঘোষনা দেন সৌদির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান – আরব নিউজ

বাংলা সংলাপ ডেস্ক
বাংলাদেশসহ ৩৪টি মুসলিম দেশের সমন্বয়ে নতুন এক সামরিক জোটের ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। সৌদির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে এ জোটের ঘোষনা দেন। সন্ত্রাস ও উগ্রবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের উদ্ধেশ্যে গঠিত এ জোটের নাম দেয়া হয়েছে- ‘ইসলামিক মিলিটারি অ্যালায়েন্স টু ফাইট টেরোরিজম’।
সৌদি প্রেস এজেন্সিতে প্রকাশিত এক যৌথ বিবৃতিতে জানানো হয়, জোটের ‘যৌথ অপারেশন সেন্টার’ স্থাপন করা হবে রাজধানী রিয়াদে। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা, প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ এবং কৌশল প্রণয়নের কাজ ওই অপারেশন সেন্টার থেকেই হবে। জাতিসংঘ সনদ, ওআইসি সনদ এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক সনদ ও চুক্তি অনুসরণ করেই পরিচালিত হবে এর কার্যক্রম।
জোটে বাংলাদেশের অংশগ্রহনের বিষয়টি নিশ্চিত করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুলআজিজ এই জোট গঠনের উদ্যোগ নিয়েছেন এবং প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে তাতে যোগ দেওয়ার জন্য বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর কাছে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাঠিয়েছেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদেল বিন আহমেদ আল-জুবাইর।এতে আরও বলা হয়, সন্ত্রাসবাদ ও সহিংস উগ্রবাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির আলোকে অন্যান্য মুসলিম দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশ এই জোটে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
আরব নিউজের খবরে বলা হয়, এই জোট গঠনের বিষয়ে মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন সৌদি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ক্রাউন প্রিন্স মোহম্মদ বিন সালমান। তিনি বলেন, তার দেশের নেতৃত্বে নতুন এই সামরিক জোট ইরাক, সিরিয়া, লিবিয়া, মিশর ও আফগানিস্তানে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ‘সমন্বিত’ উদ্যোগ নেবে। নিরপরাধ মানুষকে সন্ত্রস্ত করার এবং বিশ্বে মৃত্যু ও দুর্নীতির রাজত্ব কায়েম করার চেষ্টা যারাই করবে, তাদের নাম বা মতবাদ যাই হোক না কেন, সেই অশুভ সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বা সংগঠনের বিরুদ্ধে লড়াই করে দেশ রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে এই জোট।
সৌদি আরব ও বাংলাদেশ ছাড়াও জোটের অন্যান্য সদস্যরাষ্ট্রগুলো হচ্ছে- বাহরাইন, বেনিন, শাদ, কোমোরোস, আইভরি কোস্ট, জিবুতি, মিশর, গ্যাবন, গায়না, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, লিবিয়া, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, মালি, মরক্কো, মৌরিতানিয়া, নাইজার, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, কাতার, সেনেগাল, সিয়েরা লিওন, সোমালিয়া, সুদান, টোগো, তিউনিসিয়া, তুরস্ক, আরব আমিরাত ও ইয়েমেন।
এছাড়াও ইন্দোনেশিয়াসহ আরও ১০টির বেশি মুসলিম দেশ এই জোটকে সমর্থন জানিয়েছে বলেও সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে। তবে ওই তালিকায় আফগানিস্তান, ইরাক, ইরান বা সিরিয়ার মতো মুসলিম দেশ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *