শুক্রবার , ১৯ এপ্রিল ২০১৯
সর্বশেষ সংবাদ
Home » ব্রিটেনের সংবাদ » ব্রেক্সিটের সময় বাড়ল ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত
থেরেসা

ব্রেক্সিটের সময় বাড়ল ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃআবার সময় বাড়ল বিচ্ছেদের। আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে আলাদা হচ্ছে না যুক্তরাজ্য। গতকাল বুধবার এই সময়সীমার বিষয়ে দুই পক্ষ সম্মত হয়েছে বলে জানান ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

গতকাল বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট ভবনে ব্রেক্সিটের সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়ে বৈঠক হয়। পাঁচ ঘণ্টাব্যাপী ওই বৈঠক শেষে সিদ্ধান্ত জানান ডোনাল্ড টাস্ক। তিনি বলেন, ‘ব্রিটিশ বন্ধুদের জন্য আমাদের বার্তা হলো, দয়া করে এই সময়টা নষ্ট করবেন না।’ তিনি যোগ করেন, কর্মসূচি অবশ্যই সম্পূর্ণভাবে যুক্তরাজ্যের হাতে থাকবে। তারা এখনো ব্রেক্সিট চুক্তি অনুমোদন করতে পারে, সে ক্ষেত্রে এই বাড়ানো সময় বাতিল করা যাবে।

এর আগে ডোনাল্ড টাস্ক ব্রেক্সিটের জন্য ইইউয়ের কাছে যুক্তরাজ্যকে ‘১২ মাসের নমনীয়’ সময় দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলেন।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেও বলেন, যত দ্রুত সম্ভব ইইউ ছেড়ে যাওয়া যুক্তরাজ্যের লক্ষ্য।

আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী লিও ভারাদকার বলেন, ইউরোপের নির্বাচনে এখন যুক্তরাজ্যকে থাকতে হবে। তা না হলে আগামী ১ জুন কোনো চুক্তি ছাড়া বিচ্ছেদ ঘটাতে হবে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ১২ এপ্রিল থেকে ৩০ জুনের মধ্যে যুক্তরাজ্যের প্রস্থানের সম্ভাব্য তারিখ ঠিক করতে চেয়েছিলেন। তবে তারিখ আবার পেছানোর সুযোগটা রাখতে চেয়েছিলেন মে। কারণ, পার্লামেন্টে যদি ব্রেক্সিট চুক্তি অনুমোদন না দেওয়া হয়, তখন আবার সময় বাড়াতে হতে পারে—এমনটা ভাবছিলেন মে।

গত ২৯ মার্চ বিচ্ছেদ কার্যকরের কথা ছিল। ব্রিটিশ রাজনীতিকদের অনৈক্যের কারণে তা হয়নি। দিনটি পিছিয়ে ১২ এপ্রিল নির্ধারণ করা হয়। তবে এখনো কোনো চুক্তিতে পৌঁছাতে পারেনি ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। আবারও সময় চায় তারা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ৩১ অক্টোবর পছন্দ বাড়ল সময়।

আরও দেখুন

_106420286_8d8a5673-14bb-4171-a58c-7052269efe38

অ্যাসাঞ্জকে মৃত্যুদণ্ডের মুখোমুখি না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যুক্তরাজ্য

বাংলা সংলাপ ডেস্কঃইকুয়েডরকে যুক্তরাজ্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, এমন কোনও দেশে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে তারা প্রত্যর্পণ করবে না, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *